থার্টি ফার্স্ট নাইট

একটি ছেলে। অনেক উচ্ছৃঙ্খল। হঠাৎ কোনো কারণে তার মাঝে পরিবর্তন আসে। জুম্মার নামাজও যে পড়তো না, সে নিয়মিত তাহাজ্জুদ পড়তে শুরু করলো। প্রতি ওয়াক্তেই জামাত শুরুর বিশ-পঁচিশ মিনিট আগে মসজিদে হাজির হয়ে যেত। ইমাম সাহেবের ঠিক পেছনে প্রথম কাতারে সালাত আদায় করতো সে নিয়মিত। আগে প্যান্টশার্ট পরতো, এখন পাজামা-পাঞ্জাবি, মাথায় পাগড়ি। পাজামাটাও টাখনুর অনেক উপরে। তাঁর পরিবর্তনের কারণ মনে নেই, কিন্তু পরিবর্তন হওয়ার পর তার এই আমলগুলো এখনও চোখে ভাসে।

এরপর ঠিক আগের মতো, হঠাৎ করেই আবার তাঁর উলটো পরিবর্তন হতে শুরু করলো। প্রথমে ফজরের জামাত, ধীরে ধীরে সব জামাতেই সে অনিয়মিত হয়ে গেল। এরপর একসময় মসজিদে আসাই ছেড়ে দিল। মাস দু’য়েক পর দাড়ি কেটে ফেলল। থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্ট, হাতে ব্রেসলেট, মুখে সিগারেট নিয়ে বন্ধুদের সাথে মসজিদের পাশে জামাত চলাকালিন সময়তেও আড্ডা দিত, কিছুদিন আগের তাহাজ্জুদগুযার এ ছেলেটি।

আমরা যারা তাকে খুব ঘনিষ্ঠভাবে চিনতাম, আমাদের দেখলে একটু লজ্জা পেত, কিন্তু হাতের সিগারেটটা হাতেই থাকতো। অনেকটা বেপরোয়া ভাব। নামাজে আসার দাওয়াত দিলে, প্যান্ট ঠিক না থাকার অজুহাত দেখাত।

অথচ এই ছেলেই একদিন আমাকে আগে সালাম দিতে না পেরে খুব আফসোস করেছিল যে, সে আজ সালাম দেয়ার ফযিলতটা পেল না। ক্ষুদ্র থেকে ক্ষুদ্র আমলও যে ছেড়ে দিতে নারাজ, বড় থেকে বড় আমলও আজ তার ছুটে যাচ্ছে কিন্তু তার বিন্দুমাত্র আফসোস নেই।

New Year's Eve in Times Square New York
Photo credit: Anthony Quintano, via flickr[dot]com/photos/quintanomedia/11464548323
নিজ চোখে দেখা এই পরিবর্তন একটি কঠিন ও বাস্তব কথাই মনে করিয়ে দেয় বারবার। হিদায়াহ পাওয়া, হিদায়াহর উপর চলা, হিদায়াহর উপর মৃত্যুবরণ করা – এগুলো কোনোটাই আমাদের হাতের কামাই না। আজ আমরা যারা দ্বীনের উপর চলতে চেষ্টা করি, আমাদের অনেকেরই অতীত ঘাঁটলে এক মারাত্মক দুর্গন্ধই বের হবে। এবং এই গ্যারান্টিও কারো কাছে নেই আমাদের ভবিষ্যৎ কি পুনরায় কলুষিত হবে, নাকি পূর্বের তুলনায় হবে আরও সুবাসিত।

এত কিছু লেখার কারণ একটাই। থার্টি ফার্স্ট নাইট সম্পর্কে কিছু লেখা দেখে বেশ খারাপ লাগছে। এ রাত উদযাপনকারী মুসলিম ভাইবোনের প্রতি ঘৃণা নয়, তাচ্ছিল্য নয়, বরং অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে দু’আ করুন আল্লাহ তা’আলা যেন তাঁদের হিদায়াহ দান করেন। অসম্ভব কিছু নয়, আপনার দু’আ, ভালবাসা ও যথাসাধ্য চেষ্টার মাধ্যমে এতটা পরিবর্তন আল্লাহ তা’আলা ঘটাবেন, আগামী বছর এই রাত আসার আগে তার আচার-আচরণ দেখে হয়তো বিশ্বাস করতেই কষ্ট হবে,

এই মানুষটি কি সেই মানুষ যাকে আমি এক বছর আগে দেখেছিলাম? ………

সূত্র: https://www.facebook.com/rksaninbd/posts/166689787022337

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this:
search previous next tag category expand menu location phone mail time cart zoom edit close