ঈমান বাড়ানোর সহজ চারটি উপায়

Forest

আমাদের ঈমান কখনও বাড়ে, আবার কখনও কমে। সুতরাং, এটা বোঝা দরকার আমার ঈমান কি বাড়ছে, নাকি কমছে? ঈমান মাপার বাটখারাটা আসলে কী? আমাদের ঈমান কীভাবে বাড়বে আর কীভাবে কমবে তা আমাদের জানা থাকা দরকার। 

সহজ কথায় বললে, ঈমান হলো আ’মালের সমানুপাতিক। উদাহরণস্বরূপ, আপনি আল্লাহর উপর ঈমান এনেছেন। এখন আপনার এই ঈমান তত বেশি বলে বিবেচিত হবে যত বেশি আপনি তাঁকে অনুভব করবেন। চিন্তা ও কর্মে তাঁর অস্তিত্ব যত বেশি টের পাবেন। যত বেশি তাঁকে স্মরণ করবেন। যত বেশি তাঁর নিকট দুআ করবেন। যত বেশি তাঁর শাস্তিকে ভয় পাবেন। যত বেশি তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ হবেন। যত বেশি তাঁর বন্ধুদের ভালোবাসবেন, যত বেশি তাঁর শত্রুকে ঘৃণা করবেন। এখন আপনিই মেপে দেখুন দিনের কতটুকু সময় আপনি তাঁকে অনুভব করেন। আশা করি বুঝতে পারবেন।

এরপর আপনার ঈমান হলো তাঁর কিতাবের উপর। এখন আপনার এই ঈমান তত বেশি যত বেশি আপনি তার অধ্যায়ন করেন। যত বেশি তার অনুসরণ করেন। আপনি যত বেশি তার আদেশ মেনে চলেন আর যত বেশি তার নিষেধ থেকে দূরে থাকেন তত বেশি আপনি তাঁর কিতাবের উপর ঈমানদার।

আপনি ঈমান এনেছেন তাঁর রসুলের উপর। কতটুকু? যতটুকু আপনার জীবনে তাঁর অনুসরণ আছে। যতটুকু তাঁকে ফলো করেন। তাঁর আদর্শ, নীতি আর কর্মকে যতটুকু ধারণ করেছেন। অততুকুই তাঁর উপর আপনার ঈমান।

আপনার ঈমান হলো আখিরাতের উপর। কতটুকু? যতটুকু আপনি তাকে দুনিয়ার উপর প্রাধান্য দিয়েছেন। সেখানকার সম্পদ-সম্পত্তির উপর যতটুকু নজর রাখেন। সেখানকার লাভ-ক্ষতি আপনাকে যতটুকু পোড়ায়। দুনিয়ার লোভ আপনি আখিরাতের জন্য যতটুকু ছেড়েছেন ততটুকুই হলো আখিরাতের উপর আপনার ঈমান।

তাহলে ভাইয়েরা, এতক্ষণে আমরা আমাদের ঈমানের একটা মাপ পেলাম। ছোট বড় যা-ই হোক আমরা সেটা বাড়াতে চাই, তাই নয় কি? নাকি এমন কেউ আছেন যে, যথেষ্ট ঈমান হয়ে গেছে তাই আর না বাড়ালেও চলবে? মনে হয় না। তাহলে আসুন, ঈমান বাড়ানোর চারটি সহজ উপায় সম্পর্কে সংক্ষেপে জানি:

১. আল্লাহর উপর ঈমান বাড়ানোর উপায় হলো তাঁর সম্পর্কে জানা। আপনি তাঁর পরিচয়গুলো বেশি বেশি পড়ুন। চিন্তা করুন। তাঁর নাম ও গুণগুলো নিয়ে চিন্তা করুন। তাঁর স্বত্বাগত ও কর্মগত যত হাদিস আছে সেগুলো মনে রাখুন। যারা তাঁর কথা বলে তাদের সাথে থাকুন। যা কিছু করবেন তাঁর জন্য করুন। তাঁর নাম নিয়ে করুন। তাঁর উপর ভরসা করে করুন। ঈমান বাড়বে, ইনশাআল্লাহ।

২. কিতাবের (অর্থাৎ, কুরআনের) উপর ঈমান বাড়ানোর উপায় হলো তাকে বক্ষে ধারণ করা। তার শব্দে শব্দে নিজেকে খোঁজা। কিতাবের মোহে মোহগ্রস্থ হওয়া। এটা করতে আপনি অনুবাদে না মজে চেষ্টা করুন সরাসরি আল্লাহর কালামের মধ্যে প্রবেশ করতে। ভাষার যে দেওয়াল আপনার আর কিতাবের মধ্যে আছে সেটা ভেঙে ফেলুন। অনুবাদ পড়ে আপনি বড়জোর বাক্যে বাক্যে ডিঙ্গি নিয়ে বিচরণ করতে পারেন, কিন্তু শব্দে শব্দে খালি দেহে সাতার কাটতে পারেন না। মহব্বত আসবে কী করে! দুর্বোদ্ধ বন্ধুর মাঝে সঙ্গ খুঁজে কতদিন পারা যায়! চিন্তার দুয়ারে কড়া লাগিয়ে কতদূর ভাবা যায়!

৩. নবীর (ﷺ) উপর বিশ্বাস, ভালোবাসা আর আনুগত্যের শুরু হয় তাঁকে জানার মাধ্যমে। সুতরাং, তাঁর জীবনী পড়ুন। এটা ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। তাঁকে চেনাই হলো তাঁকে ভালোবাসার প্রথম বিষয়। তাঁর কথাগুলো বেশি বেশি পড়ুন। আপনার সম্পর্কে তিনি কী বলেছেন বিশেষ করে সেগুলো পড়ুন। তাঁর সহচর ও বন্ধুদের সম্পর্কে পড়ুন। কীভাবে তাঁরা তাঁকে মেনেছেন, কীভাবে ভালোবেসেছেন — তা জানুন। ছোট থেকে ছোট বিষয়ে তাঁকে অনুসরণ করুন। তাঁর জন্য বেশি বেশি আল্লাহর কাছে দুআ করুন। আপনার চিন্তা ও কর্মের সাজেশন কেবল তাঁর থেকেই গ্রহণ করুন। তাঁর প্রতি ভালোবাসা, আস্থা ও বিশ্বাস বাড়বে, ইনশাআল্লাহ।

৪. আখিরাতের উপর ঈমান বাড়াতে হলে মৃত্যু, কবর, হাশর, বিচার, পুলসিরাত, জান্নাত, জাহান্নাম — এগুলোর উপর বিস্তারিত জ্ঞান লাভ করুন। এ সম্পর্কিত কম্পাইলেশন করুন। নিজে। কপি-পেস্টের এই যুগে এটা কোনো কঠিন কাজ না। কাজ নিজে করা আর অন্যের করে দেওয়ার মধ্যে পার্থক্য আছে। নিজের রান্না খারাপ হলেও স্বাদ বেশি লাগে। যে বন্ধুকে দেখলে আখিরাতকে ভুলে যান তাকে ত্যাগ করুন। যে বন্ধুকে দেখলে আখিরাতকে মনে পড়ে তাঁর খেদমতে হাজির হোন। তাঁর দুয়ারে যত বেশি সম্ভব বসে থাকুন।

সবশেষে একটা কথা বলি। আমাদের হৃদয়ে দুটি প্রকোষ্ঠ আছে। একটাতে ভালোবাসা, একটাতে ঘৃণা। যারা কিনা এই দুটি প্রকোষ্ঠ আল্লাহর জন্য পূর্ণ করতে পারবে তারাই তাদের ঈমানকে কামিয়াব করতে পারবে। রসুলুল্লাহ (স) বলেছেন: مَنْ أَحَبَّ لِلَّهِ (যে আল্লাহর জন্য ভালোবাসে), وَأَبْغَضَ لِلَّهِ (আল্লাহর জন্য ঘৃণা করে), وَأَعْطَى لِلَّهِ (আল্লাহর জন্য দান করে) وَمَنَعَ لِلَّهِ (এবং আল্লাহর জন্য দান করায় বাঁধা দেয়) فَقَدِ اسْتَكْمَلَ الإِيمَانَ (সে তার ঈমানকে পূর্ণ করেছে)।

মহান আল্লাহ আমাদেরকে ঈমান ও আ’মালে পূর্ণতা দান করুন। আমীন।

মূল লেখাটি প্রথম প্রকাশিত হয় লেখকের ব্যক্তিগত ফেসবুক প্রোফাইলে

আরও পড়ুন:

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s